neymar Brazil Costa Rica FIFA World Cup 2018 Football Russia
আবেগাপ্লুত নেইমার।

২০১৮ বিশ্বকাপের আগে ব্রাজিল ছিল টপ ফেবারিট। বাছাইপর্বে এতটাই দুর্দান্ত খেলেছে ব্রাজিল যে ট্রফিটা রীতিমতো তাদের অপেক্ষাতেই ছিল। কিন্তু মূল টুর্নামেন্টে হলো অন্য কিছু। কোয়ার্টার ফাইনাল থেকেই বিদায় নিয়েছে দলটি। আর দলের চেয়ে বেশি আলোচনায় ছিলেন নেইমার। দলের প্রাণভোমরা প্রথমে অদ্ভুত চুল নিয়ে দৃষ্টি কেড়েছেন, পরে মাঠে অতি নাটুকেপনায় বিরক্তি জাগিয়েছেন। খেলার চেয়ে গায়ে একটু টোকা লাগলেই মাঠে পড়ে গড়াগড়ি দিয়ে রেফারির পক্ষপাত আদায় করার দিকেই তাঁর ছিল বেশি। এমন আচরণে সমালোচনা জোগাড় করতে খুব কষ্ট হয়নি নেইমারের।

বিশ্বকাপ শেষ হওয়ার পরও যে নেইমারের এমন আচরণ থেমেছে তা নয়। বিশ্বকাপের মতো তিন চারবার ডিগবাজি না দিলেও পিএসজির হয়ে মৌসুমের শুরুতেও নেইমার মাঠে গড়াগড়ি দিয়েছেন সুযোগ পেলেই। তাঁর এমন আচরণ যে মেনে নেওয়া যায় না বলে হালকা বকুনি দিয়েছিলেন পেলে, ‘নেইমারের সঙ্গে কথা হয়েছে আমার। ফুটবল খেলার পাশাপাশি ও মাঠে যা কিছু করে, সবকিছু নিয়েই। আমি তাকে মনে করিয়ে দিয়েছি সে কত বড় একটা প্রতিভা। নিজের প্রতিভার প্রতি সুবিচার না করে, নিজের প্রতিভার সর্বোচ্চ ব্যবহার না করে তার মনোযোগ যদি ডাইভ দেওয়ার দিকেই থাকে, তাহলে তাকে সমালোচনা থেকে রক্ষা করাটা বেশ কষ্টকর হয়ে দাঁড়ায়।’

প্রায় দেড় মাস পর পেলের সমালোচনা নিয়ে মুখ খুলেছেন নেইমার। ফ্রেঞ্চ সংবাদমাধ্যম ক্যানালকে বলেছেন, ‘পেলের সমালোচনা? আমার কাছে সেগুলো বেশ কৌতূহলোদ্দীপক মনে হয়েছে। যখন আপনি কিছু জিততে ব্যর্থ হবেন, সমালোচনা শুরু হবে। আমি বিশ্বকাপে মোটেও অভিনয় করিনি। আমাকে সবাই ফাউল করেছে। আজ মানুষ এ নিয়ে অনেক কথা বলছে কারণ এটা নেইমারের ব্যাপারে এবং এ ব্যাপারে সবকিছুই বাড়িয়ে বলা হয়। আমি পেলের সমালোচনাকে সম্মান করি কিন্তু আমি একে ঠিক বলে মনে করি না।’

নেইমার বলছেন ব্যর্থ হয়েছেন বলেই সমালোচনা হচ্ছে। পেলেও বলেছেন ব্রাজিল ব্যর্থ হয়েছে বলেই নেইমারের দোষারোপ বেশি হচ্ছে। কিন্তু এটা বলতেও ভোলেননি নেইমার তাঁর প্রতিভা অনুযায়ী খেললে এবং মাঠে নাটুকেপনা না দেখালে এমন কিছু হতো না, ‘নেইমারের দুর্ভাগ্য যে সে ব্রাজিলকে নিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালের বেশি যেতে পারেনি। যে কারণে সবাই আলাদা করে শুধু তাকেই দুষেছে। ইউরোপে আমি তার সঙ্গে দুবার দেখা করেছি, কথা বলেছি। আমি তাকে বলেছি, ঈশ্বর তোমাকে অনন্যসাধারণ ফুটবলীয় প্রতিভা দিয়েছেন। তাই মাঠে এমন কিছু কোরো না, যাতে সেই প্রতিভার অসম্মান করা হয়।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here